আসা করি সবাই ভালো আছেন আগের পোস্ট থেকে জেনেছেন প্রোগ্রামিং সি এ ইনপুট / আউটপুট

প্রোগ্রামিং সি নিয়ে আমাদের সিরিজ পোস্ট চলছে জানেন আসা করি এই সিরিজ পোস্ট দেখলে আপনি নিজে ই প্রোগ্রামিং করতে পারবেন


আজকের পোস্ট এর টপিক ঃ  সি প্রোগ্রামিং অপারেটর

সি প্রোগ্রামিং অপারেটর

অপারেটর হল একটি প্রতীক,  যা কাজ করে কোন একটি ভ্যালু এর উপর অথবা একটি ভেরিয়েবল এর উপর. উদাহরণস্বরূপ: + একটি অপারেটর যা যোগ এর কাজ করে.
সি পোগ্রামিং এ অনেক অপারেটর আছে যা বিভিন্ন ধরনের কাজ করে থাকে।ভাল করে বুঝতে এদের কে বিভিন্ন শ্রেণীতে বিভক্ত করা হয়েছে।

সি প্রোগ্রামিং অপারেটর

Arithmetic Operators

Increment and Decrements Operators

Assignment Operators

Relational Operators

Logical Operators

Conditional Operators

Bit-wise Operators

Special Operators

                      প্রতিটি অপারেটরের বিষদ বর্ননা নিচে দেওয়া হল

এরিথমেটিক অপারেটর (Arithmetic Operators):

অপারেটর             অপারেটর এর অর্থ
+ যোগ
বিয়োগ
* গুন
/ ভাগ
 % বিভাজন করার পর ভাগশেষ (মডুলাস  বিভাজন)

এরিথমেটিক অপারেটর এর উদাহরণঃ

/* এরিথমেটিক অপারেটর প্রোগ্রামিং সি তে কি ভাবে কাজ করে তা নিচের প্রোগ্রামে দেখানো হল */#include <stdio.h>int main(){

int a=9,b=4,c;c=a+b;

printf(“a+b=%d\n”,c);

c=a-b;

printf(“a-b=%d\n”,c);

c=a*b;

printf(“a*b=%d\n”,c);

c=a/b;

printf(“a/b=%d\n”,c);

c=a%b;

printf(“Remainder when a divided by b=%d\n”,c);

return 0;

}

 

আউটপুটঃ

a+b=13
a-b=5
a*b=36
a/b=2
Remainder when a divided by b=1

ব্যাখ্যা:

এখান এ প্রোগ্রামটিতে +, -, *  ওরা,  আপনারা যা আশা করেছেন সেই ভাবেই কাজ করেছে। কিন্তু নরমালি হিসাব করলে আপনারা 9/4= 2.25 হত। কিন্ত এখান এ দেখাচ্ছে 9/4=  আর কারন হল উপর এ আমরা a, b  টি   ভেরিয়েবল  ই ইন্টিজার টাইপ আর  তাই আউটপুট ও ইন্টিজার টাইপ এ দেখাছে এবং  a%b=1, দেখাছে এর কারন a=9 কে b=4, দিয়ে ভাগ করলে ভাগশেষ থাকে 1.

Suppose  a=5.0, b=2.0, c=5 and d=2In C programminga/b=2.5a/d=2.5c/b=2.5c/d=2

দ্রষ্টব্যঃ % অপারেটর শুধু মাত্র ইন্টিজার টাইপ ডেটাতে ব্যবহার করা হয়।

ইনক্রিমেন্ট(Increment) এবং  ডিক্রিমেন্ট(Decrement) অপারেটর :

প্রোগ্রামিং সি তে “++” এবং “ – -”  কে যথাক্রমে ইনক্রিমেন্ট(Increment) এবং  ডিক্রিমেন্ট(Decrement) অপারেটর হিসেবে ব্যবহার করা হয়। এই দুইটা অপারেটরকেই ইউনারি অপারেটর বলা হয় যা সিঙ্গেল অপারেন্ডে ব্যবহার করা হয়। “++” এবং “ – –”  এই দুইটা অপারেটর যথাক্রমে অপারেন্ডের সাথে ১ যোগ করে এবং অপারেন্ড থেকে ১ বিয়োগ করে। উদাহরণ সরূপ ,

ধরি, a=5 এবং  b=10
a++;  //a 6 হবে
a–;  //a 5 হবে
++a;  //a 6 হবে
–a;  //a 5 হবে

পোস্ট-ফিক্স এবং প্রি-ফিক্স হিসেবে “++” এবং “–” অপারেটরের মধ্যে পার্থক্য:

যখন “++” প্রি-ফিক্স হিসেবে ব্যবহার করা হবে, যেমন ++a, তখন “++a” আগে a এর মান ১ বৃদ্ধি করবে তারপর a  এর  মান দেখাবে। একইভাবে “++” যখন পোস্ট-ফিক্স হিসেবে ব্যবহার করা হবে,যেমন a++, তখন অপারেটর আগে অপারেন্ড এর মান রিটার্ন করবে এবং তারপর সেটার মান ১ বৃদ্ধি করবে।

“–” অপারেটর ও পোস্ট-ফিক্স এবং প্রি-ফিক্স হিসেবে একই ভাবে কাজ করে। নিচে একটি উদাহরণ এর সাহায্যে বিষয়টি বুঝানো হল।

#include <stdio.h>int main(){int c=2;printf(“%d\n”,c++);//এই স্টেটমেন্টটি প্রথমে c এর মান ২ ডিসপ্লে করবে তারপর c এর মান ১ বেড়ে ৩ হবে।printf(“%d”,++d );   //এই স্টেটমেন্টটি প্রথমে c এর মান ১ বাড়াবে এবং তারপর সেটা c এর  মান ডিসপ্লে করবে।return 0;

}

আউটপুট:

2
4

এসাইনমেন্ট অপারেটরস( Assignment Operators) :

বহুল ব্যবহৃত এসাইনমেন্ট অপারেটর হল “=” অপারেটরটি। এই অপারেটরটি, অপারেটর এর ডান পাশের মান এর বাম পশে এসাইন করে। উদাহরণ সরূপ

var=5  //5 is assigned to var
a=c;   //value of c is assigned to a
5=c;   // Error! 5 is a constant.

অপারেটর উদাহরণ অন্য রূপ
= a=b a=b
+= a+=b a=a+b
-= a-=b a=a-b
*= a*=b a=a*b
/= a/=b a=a/b
%= a%=b a=a%b

রিলেশনাল অপারেটর (Relational Operators):

রিলেশনাল অপারেটর দুইটি অপারেন্ডের মধ্যের সম্পর্ক চেক করে। যদি সম্পর্ক টি সত্য হয় তাহলে এটা ১ ভেলু রিটার্ন করে এবং যদি মিথ্যা হয় তাহলে ০ ভেলু রিটার্ন করে। যেমন , a>b

এখানে > হল  একটি রিলেশন অপারেটর। যদি a, b এর থেকে বড় হয় তাহলে a>b ১ রিটার্ন করবে আর যদি তা না হয় তাহলে ০ রিটার্ন করবে।

প্রোগ্রামিং সি তে ডিসিশন মেকিং এবং লুপ এ রিলেশনাল অপারেটর ব্যবহার করা হয়।

অপারেটর অপারেটরের অর্থ উদাহরণ
== Equal to 5==3 returns false (0)
> Greater than 5>3 returns true (1)
< Less than 5<3 returns false (0)
!= Not equal to 5!=3 returns true(1)
>= Greater than or equal to 5>=3 returns true (1)
<= Less than or equal to 5<=3 return false (0)

লজিকাল অপারেটর (Logical Operators) :

রিলেশন অপারেটরস গুলার এক্সপ্রেশন একত্রিত করার জন্য লজিকাল অপারেটর ব্যবহার করা হয়। প্রোগ্রামিং সি তে ৩ টি লজিকাল অপারেটর রয়েছে।

অপারেটর অপারেটরের অর্থ উদাহরণ
&& Logial AND If c=5 and d=2 then,((c==5) && (d>5)) returns false.
|| Logical OR If c=5 and d=2 then, ((c==5) || (d>5)) returns true.
! Logical NOT If c=5 then, !(c==5) returns false.

ব্যাখ্যাঃ

((c==5) && (d>5)) এক্সপ্রেশনটি সত্য হওয়ার জন্য c==5 এবং d>5 এই দুইটা কন্ডিশন্ই সত্য হতে হবে, কিন্তু উদাহরণ এ দেওয়া d>5 কন্ডিশন্ টি মিথ্যা তাই এই এক্সপ্রেশনটি মিথ্যা।

((c==5)||(d>5)) এক্সপ্রেশনটি সত্য কারণ এই এক্সপ্রেশনটির ২ টা কন্ডিশন্ই সত্য।

!(c==5)  এক্সপ্রেশনটি মিথ্যা কারণ কন্ডিশনে c=5 দেওয়া আছে।

কন্ডিশনাল অপারেটরস( Conditional Operators):

প্রোগ্রামিং সি তে ডিসিশন মেকিং এর  জন্য কন্ডিশনাল অপারেটরস ব্যবহার করা হয়। যেমন , টেস্ট কন্ডিশন অনুসারে বিভন্ন স্টেটমেন্ট এক্সিকিউট করা এটা সত্য নাকি মিথ্যা তার উপর নির্ভর করে।

কন্ডিশনাল অপারেটরের সিনটেস্ক:

conditional_expression?expression1:expression2

যদি টেস্ট কন্ডিশন সত্য হয় তাহলে এক্সপ্রেশন ১ রিটার্ন করবে আর যদি মিথ্যা হয় তাহলে এক্সপ্রেশন ২ রিটার্ন করবে। উদাহরণ সরূপ:

#include <stdio.h>int main(){char feb; int days;printf(“Enter l if the year is leap year otherwise enter 0: “);scanf(“%c”,&feb);

days=(feb==’l’)?29:28;

/*If test condition (feb==’l’) is true, days will be equal to 29. */

/*If test condition (feb==’l’) is false, days will be equal to 28. */

printf(“Number of days in February = %d”,days);

return 0;

}

 

আউটপুট:

Enter l if the year is leap year otherwise enter n: lNumber of days in February = 29

বিটওয়াইজ অপারেটরস( Bitwise Operators) :

বিটওয়াইজ অপারেটর ডেটার প্রতিটি বিট এর সাথে কাজ করে। বিট লেভেল প্রোগ্রামিংয়ে বিটওয়াইজ অপারেটর ব্যবহার করা হয়। নিচে কিছু বিটওয়াইজ অপারেটরের নাম এবং তাদের অর্থ দেওয়া হল।

অপারেটর অপারেটরের অর্থ
& Bitwise AND
| Bitwise OR
^ Bitwise exclusive OR
~ Bitwise complement
<< Shift left
>> Shift right

কমা অপারেটর (Comma Operator):

পরস্পর সম্পর্কযুক্ত এক্সপ্রেশনগুলো একসাথে করার জন্য কমা অপারেটর ব্যবহার করা হয়। যেমন, int a,c=5,d;

সাইজঅফ অপারেটরস (size of operator):

এটা একটি ইউনারি অপারেটর যা ব্যবহার করা হয় ডেটাটাইপ,কনস্ট্যান্ট আ্যারে,স্ট্রাকচার্ সহ ইত্যাদির সাইজ জানার জন্য। উদাহরন সরুপ নিচের প্রোগ্রামটি দেওয়া হল।

#include <stdio.h>int main(){int a;float b;double c;

char d;

printf(“Size of int=%d bytes\n”,sizeof(a));

printf(“Size of float=%d bytes\n”,sizeof(b));

printf(“Size of double=%d bytes\n”,sizeof(c));

printf(“Size of char=%d byte\n”,sizeof(d));

return 0;

}

আউটপুটঃ

Size of int=4 bytesSize of float=4 bytesSize of double=8 bytes

Size of char=1 byte

 



সি প্রোগ্রামিং সিরিজ



পর্ব ১ ঃ  প্রোগ্রামিং সি পর্ব ০১ – প্রাথমিক ধারণা



পর্ব ২ ঃপ্রোগ্রামিং সি বাংলা পর্ব ০২ – প্রথম প্রোগ্রাম


পর্ব ২ ঃ প্রোগ্রামিং সি বাংলা পর্ব ০৩ -সি কিওয়ার্ড এবং আইডেন্টিফায়ারপ্রোগ্রামিং সি বাংলা পর্ব ০২ – প্রথম প্রোগ্রাম


পর্ব ৩ ঃসি কিওয়ার্ড এবং আইডেন্টিফায়ার



পর্ব ৪ : সি ভেরিয়েবল এবং কন্সট্যান্ট


পর্ব ৫ : সি ভেরিয়েবল এবং কন্সট্যান্ট 


 পর্ব ৬ : প্রোগ্রামিং সি এ ইনপুট / আউটপুটসি ভেরিয়েবল এবং কন্সট্যান্ট


  পর্ব ৭ :সি প্রোগ্রামিং অপারেটর


টেকহাব এর সাথে থাকবেন। কপিরাইট © ২০১৭ | প্রকাশিত লেখাসমুহ টেকহাব.কম.বিডি দ্বারা সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। অনুগ্রহপূর্বক অনুমতি ব্যতীত এই ওয়েবসাইটের কোন লেখা অন্য কোথাও প্রকাশ করবেন না করলে আইনত ব্যবস্তা গ্রহন করা হবে। ধন্যবাদ।

Author: UDOY

Hlw,I am Udoy Saha Abir.

Leave a Reply

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here